Comjagat.com-The first IT magazine in Bangladesh
  • ভাষা:
  • English
  • বাংলা
হোম > লেখা > আইফোনে এনএফএস
লেখক পরিচিতি
লেখকের নাম: জাভেদ চৌধুরী
মোট লেখা:১৪
লেখা সম্পর্কিত
পাবলিশ:
২০১১ - মে
তথ্যসূত্র:
কমপিউটার জগৎ
লেখার ধরণ:
মোবাইল
তথ্যসূত্র:
মোবাইলপ্রযুক্তি
ভাষা:
বাংলা
স্বত্ত্ব:
কমপিউটার জগৎ
রেটিং: ০ মন্তব্য:০
আইফোনে এনএফএস

মোবাইল ফোন মানে ছোট গেম বা বাচ্চাদের গেম এই ধারণা এখন ভুল। মোবাইল ফোনে এখন বড় গেম বা মূল ধারার গেম খেলা যায়। সিরিয়াস গেমারদের জন্যও মোবাইল ফোন একটি বেশ ভালো এবং অনেক সম্ভাবনাময় গেম খেলার মাধ্যম। তবে সব ধরনের মোবাইল ফোনে এই সুবিধা পাওয়া যাবে না। কিছু নির্দিষ্ট ফোনসেটে এ ধরনের অপশন থাকে। মোবাইল বিভাগের এই সংখ্যায় অ্যাপল আইফোনে গেমিং নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হয়েছে।

গেমিং নিয়ে আলোচনা করার আগে অ্যাপলের আইফোন সম্পর্কে বলে নেয়া ভালো। আইফোন বর্তমান সময়ের সবচেয়ে আলোচিত এবং জনপ্রিয় মোবাইল ফোন। সম্প্রতি এই ফোন বাণিজ্যিক দিক থেকে নোকিয়া ফোনের চেয়ে বেশি সফলতা অর্জন করেছে। তবে তুলনামূলক দাম বেশি হওয়ায় অনেক ভোক্তা এই ফোন ব্যবহার করতে পারছেন না। তবে প্রযুক্তিগত দিক থেকে এই ফোন অনেক বেশি আধুনিক।



আইফোন ব্যবহার করেছে HSDPA (High-Speed Downlink Packet Access) টেকনোলজি প্রটোকল, যার ফলে খুব দ্রুত ডাটা ট্রান্সফার করা যায়। এর স্পিড ২জি-এর তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। Wi-Fi টেকনোলজি মাল্টিটাস্কিং সাপোর্ট করে বলে সহজেই মাল্টিটাস্কিং করা যায়। কথা বলা ও নেট সার্ফিং দুটোই একই সাথে এবং খুব সহজেই করা যায়। ৩জি নেটওয়ার্কের আওতার বাইরে ফোনের অবস্থান হলে আইফোন জিএসএম প্রযুক্তির মাধ্যমে কানেক্ট করবে এবং ডাটা ট্রান্সফারের জন্য EDGE-এর সাথে সংযুক্ত করবে।

GPS টেকনোলজি কী তা আমরা অনেকেই জানি। এই প্রযুক্তির কল্যাণে পজিশনিং সিস্টেমে এক বিপ্লব ঘটেছে। গুগল ম্যাপ সার্চিং থেকে শুরু করে লাইভ ট্রাফিক আপডেটও জানা যাবে আইফোনের এই ফিচার ব্যবহার করে।



আইফোন ব্যবহার করছে একটি অ্যাপ্লিকেশন স্টোর, যেখান থেকে দরকারি অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করা যায়। এগুলোর মধ্যে আছে গেম, এডুকেশন, বিজনেস, হেলথ, প্রোডাক্ট, সোস্যাল নেটওয়ার্কিং ইত্যাদি। আইফোন ব্যবহারে সব ধরনের অ্যাপ্লিকেশন আপডেট রাখা যায়।

আইফোন মাইক্রোসফটের সাপোর্ট (আইফোন এন্টারপ্রাইজ) ব্যবহার করে। এর সুবিধা হচ্ছে ডেস্কটপে যেভাবে অ্যাপ্লিকেশন, সফটওয়্যার ই-মেইল বা পিডিএফগুলো দেখা যায় ঠিক সেভাবেই আইফোনেও ব্যবহার করা যায়। ডেস্কটপের নেট ব্রাউজ আইফোনেই করা যায়। Cisco IPSec VPN সার্ভিসের মাধ্যমে ব্রাউজিং আরও নিরাপদ করা হয়েছে এখানে।

এবারে দেখা যাক যে গেমের কথা বলা হচ্ছে তার ফিচারগুলো কী। নিড ফর স্পিডের গত বছরে রিলিজ পাওয়া হট পারসুইট ২০১০ আইফোনে চালানো যায়। কার রেসিং গেমগুলোর মধ্যে নিড ফর স্পিড সিরিজের গেমগুলোর বিকল্প নেই বললেই চলে। একটা গেম কতটুকু জনপ্রিয় হলে প্রায় ১৫ বছর ধরে তার সিক্যুয়াল বের হতে পারে তা সহজেই অনুমেয়। অন্য রেসিং গেমগুলোর তুলনায় এনএফএস সিরিজের গেমগুলোর জনপ্রিয়তা বেশি হওয়ার কারণ এর গেম প্লে, কার কন্ট্রোলিং এবং সর্বোপরি গ্রাফিক্স। এনএফএস প্রো স্ট্রিট এই সিরিজের নতুন এবং ১১তম পর্ব। আগের পর্বগুলো হচ্ছে দ্য নিড ফর স্পিড, নিড ফর স্পিড ২, হট পারসুইট, হাই স্টেকস, পোরশে আনলিশড, হট পারসুইট ২, আন্ডারগ্রাউন্ড, আন্ডারগ্রাউন্ড ২, মোস্ট ওয়ান্টেড, কার্বন।



এই নতুন গেমটি এনএফএস রেসিং গেমের ধারাবাহিকতায় পরিবর্তন এনে দিয়েছে। ওপেন ট্র্যাকের পরিবর্তে বদ্ধ রেসিং ট্র্যাকের মাধ্যমে এই গেম সাজানো হয়েছে। ড্র্যাগ, গ্রিপ, স্পিড এবং ড্রিফট ড্র্যাগ এমন নানা ধরনের রেসের মধ্য দিয়ে এই গেমে আগাতে হবে। খেলে খেলেই পরের স্টেজগুলো এবং নতুন সব গাড়ি এবং গাড়ির পার্টস আনলক হবে। এতে প্রায় ৬০টি গাড়ি রাখা হয়েছে।

গেমটিতে দেয়া হয়েছে অসাধারণ বাস্তবতা। গাড়ি ঠিকমতো টিউন করতে পারলে গাড়ির পারফরমেন্স বাড়বে। অনলাইন প্লেতে গাড়ির ব্লুপ্রিন্ট ইন্টারনেটে শেয়ার করা যায়। গেমটির আকর্ষণীয় দিকগুলোর মধ্যে এর বাস্তবতা, নতুন ধরনের গেম প্লে, ডোমিনেটিং পয়েন্ট অর্জন করে রেকর্ড গড়া, গাড়ি ভেঙ্গে যাওয়া, কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বীর সাথে রেস খেলা ইত্যাদি।

গেমটির গ্রাফিক্স খুবই সুন্দর এবং এতটাই বাস্তব, মনে হবে মোবাইল ফোনেই পিসির সামনে বসে কোনো রেসিং মুভি দেখছেন। অবশ্য তাতে করে আইফোনের সক্ষমতাকে খাটো করে দেখা হয়। সাউন্ড ইফেক্ট ও সাউন্ড ট্র্যাকগুলো নিড ফর স্পিডের এই সিরিজে বেশ চমৎকার।

গাড়ি কাস্টমাইজেশন করার ব্যাপারে বেশ নতুনত্ব আনা হয়েছে। গেমে গাড়ি টিউন করার পর তা বেশ কার্যকর ফল দেখাবে। টিউন করে গাড়ির পারফরমেন্স বাড়ানোর জন্য অ্যালাইনমেন্ট, অ্যারোডায়নামিক্স, টায়ার, ব্রেক, ডিফারেনশিয়াল, গিয়ার, নাইট্রাস ইত্যাদির পরিবর্তন করা যাবে। সত্যিকারের ট্র্যাকের আদলে ও কিছু কাল্পনিক ট্র্যাকের সমন্বয়ে অনেকগুলো বাস্তবসম্মত রেসিং ট্র্যাক দেয়া হয়েছে। গেমের আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স বেশ ভালো করে গড়ে তোলা হয়েছে।

গেমের নতুন কিছু সংযোজনের মধ্যে রয়েছে রেসে পয়েন্ট অর্জন করে তার বিনিময়ে স্টার পাওয়া। রেস খেলার সময় ড্রিফটিং, ড্রাফটিং, ল্যাপে অন্যদের চেয়ে এগিয়ে থাকা, অন্য প্রতিযোগীকে ধাক্কা দিয়ে ট্র্যাক থেকে বের করে দেয়া, ওভারটেকিংয়ের সময় প্রতিপক্ষকে ঠেলে সরিয়ে দেয়া, স্লাইডিং না করে গতি কমিয়ে সুন্দরভাবে বাঁক নেয়া ইত্যাদির বিনিময়ে পয়েন্ট পাওয়া যাবে। নির্দিষ্টসংখ্যক পয়েন্ট অর্জন করার পর পাওয়া যাবে স্টার যা পরের লেভেল ও রেসিং ইভেন্ট আনলক করতে সহায়তা করবে। গেমে গাড়িগুলোকে এতটাই নিখুঁত করা হয়েছে যে দেখে বিশ্বাস করতে কষ্ট হবে তা আসল নয়। গেমের পরিবেশ এতটাই জীবন্ত করে তোলা হয়েছে, যা দেখলে মুভি দেখছেন বলে ভুল হতে পারে।

হট পারসুইট গেমটি আইফোনে চালানোর জন্য এই গেমটি কিনতে হবে। যাদের আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ড আছে তারা সহজেই এই গেম কিনে আইফোনে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। তারপরে এর ইনস্টলেশন খুবই সহজ।


কজ ওয়েব

ফিডব্যাক : javedcse1982@yahoo.com
পত্রিকায় লেখাটির পাতাগুলো
লেখাটি পিডিএফ ফর্মেটে ডাউনলোড করুন
লেখাটির সহায়ক ভিডিও
চলতি সংখ্যার হাইলাইটস